বৃহস্পতিবার বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা

মোঃ শফিকুর রহমান, বান্দরবান: ৭ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার থেকে যাত্রা শুরু করবে বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়| বান্দরবানবাসীর স্বপ্নের প্রতীক বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় এর একাডেমিক এবং প্রশাসনিক কার্যক্রম উদ্বোধনের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বৃহস্পতিবার ( ৭ ফেব্রুয়ারি )। এ উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

প্রধান অতিথি হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্বোধন করবেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। ওরিয়েন্টেশন বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. এম শাহ নওয়াজ আলী। বিশেষ অতিথি হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সদস্য মো. নুরুল আমিন, রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমা, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম, বান্দরবান সেনা রিজিয়নের ভারপ্রাপ্ত রিজিয়ন কমান্ডার লে. কর্ণেল এস এম আব্দুল্লাহ আল-আমিন, পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার, পৌর মেয়র ইসলাম বেবী উপস্থিত থাকবেন।

মন্ত্রণালয় ও ইউজিসি সূত্র জানায়, এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা হিসেবে রয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। তবে তার সঙ্গে স্থানীয় কয়েকজন ব্যবসায়ী রয়েছেন বলে জানা গেছে। সূত্র জানায়, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০১০ এর ৩৬ ধারা অনুযায়ী শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার প্রতিশ্রুতিতে একই আইনের ৭ এর ১ ও ২ ধারা অনুযায়ী ২৩টি শর্তে সাময়িকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় দুটির অনুমোদন দেয়া হয়। এর মধ্যে আছে প্রস্তাবিত বিশ্ববিদ্যালয়ের কমপক্ষে ২৫ হাজার বর্গফুট আয়তনের নিজস্ব বা ভাড়া করা ভবন, কমপক্ষে তিনটি অনুষদ ও ছয়টি বিভাগ, পর্যাপ্ত শ্রেণিকক্ষ, লাইব্রেরি, ল্যাবরেট্ররি, শিক্ষার্থীদের জন্য কমন রুম, সেমিনার কক্ষসহ পর্যাপ্ত অবকাঠামো থাকতে হবে। পূর্বানুমোদন ছাড়া বিভাগ খোলা যাবে না। বিভাগে শর্ত অনুযায়ী নির্দিষ্ট সংখ্যক পূর্ণকালীন শিক্ষক থাকতে হবে। আচার্যের (রাষ্ট্রপতি) পূর্ব অনুমোদন ছাড়া বিদেশ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য তহবিল সংগ্রহ করা যাবে না। আরোপিত শর্তগুলোর ওপর ৩শ’ টাকার ননজুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা দিতে হবে। উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ২০১৮ সালের ২৯ মার্চ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিবের কাছে চিঠি পাঠানো হয়। এর প্রেক্ষিতে মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিয়েছে।

Related Posts