পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে অশান্তি, শান্তি রক্ষার আবেদন মমতার

নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে সারাদিন বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ চলছিল। রেল অবরোধের সঙ্গে রাস্তা রোকো, ইট-পাটকেল ছোড়ার পাশাপাশি কয়েক জায়গায় বাসে আগুন লাগানোর ঘটনাও ঘটেছে। বিক্ষোভকারীদের শান্তি রক্ষার আবেদন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আনন্দবাজার জানায়, শনিবার বিকেল থেকে নতুন করে অবরোধ শুরু হয় দক্ষিণ-পূর্ব রেলের সাঁতরাগাছিতে। তবে, সবচেয়ে খারাপ চেহারা নেয় মুর্শিদাবাদ জেলা। পূর্ব রেলের লালগোলা এবং কৃষ্ণপুর স্টেশনে জ্বালিয়ে দেওয়া হয় একাধিক ট্রেন। আগুন লাগানো হয় লালগোলা স্টেশনে। একই সঙ্গে সুতিতে বাস পুড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি সামশেরগঞ্জ থানায় হামলা চালানো হয়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আইনভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি দিলেও গোটা পরিস্থিতিকে প্রশাসনের ব্যর্থতা হিসেবেই দেখছে রাজ্যের বিরোধী শিবির। গোটা ঘটনার নেপথ্যে চক্রান্তের অভিযোগ তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ইস্যুকে সামনে রেখে কিছু ধর্মীয় কট্টরপন্থী রাজনৈতিক দল পশ্চিমবঙ্গে দাঙ্গা তৈরি করার চেষ্টা চালাচ্ছে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, রাজ্যের মানুষকে হিংসাত্মক কাজকর্ম থেকে বিরত থাকার পাশাপাশি সম্প্রীতি ও শান্তি বজায় রাখারও আবেদন জানিয়েছেন মমতা।

মমতার বার্তা, সকল রাজ্যবাসীর কাছে আমি আবার অনুরোধ করছি, কোনওভাবেই কোনওরকম হিংসাত্মক কাজকর্মে লিপ্ত হবেন না। রাজ্যজুড়ে সম্প্রীতি ও শান্তি বজায় রাখুন। মনে রাখবেন পুলিশ থানা, রেল স্টেশন, বিমানবন্দর, পোস্ট অফিস, সরকারী দফতর, পরিবহণব্যবস্থা – সব কিছুই জনগণের সম্পত্তি। সরকারি ও বেসরকারি,  যে কোনও ধরনের সম্পত্তির কোনওরকম ক্ষতি হলে তা রাজ্য সরকার কোনওমতেই বরদাস্ত করবে না। আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

প্রবাসী টিভির ইউটিউব চ্যানেলে যোগ দিতে এখানে ক্লিক করুন।

বিনোদন বিভাগের সুপারহিট:

Related Posts