শ্রীনগরে মরা মুরগী ও অবৈধ গ্যাস বিক্রেতার জেল ও জরিমানা

মুন্সিগঞ্জ: শ্রীনগরে মরা মুরগী ও অবৈধ ভাবে এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করার দায়ে পৃথক পৃথক ভ্রাম্যমাণ আদালত মরা মুরগী বিক্রেতা মোঃ আরিফ (৩৫) কে কারাদন্ড প্রদান ও অবৈধভাবে এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রেতা মোঃ আলমগীর (৫০) কে আর্থিক জরিমানা করেছে।

৫ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার সকালে শ্রীনগর বাজারে মরা মুরগী বিক্রি করার অপরাধে আরিফকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী
অফিসার মোঃ জাহিদুল ইসলাম ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ভোক্তা অধিকার আইন
২০০৯ অনুযায়ী মরা মুরগী বিক্রি করার অপরাধে তাকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড
প্রদান করেন। এসময় তার কাছ থেকে তিন বস্তা মরা মুরগী উদ্ধার করা হয়। আরিফ
চুয়াডাংঙ্গার মৃত ছাদেকের ছেলে। সে শ্রীনগর উপজেলার বালাশুর চৌরাস্তার
আসলাম মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকেন। আরিফ দীর্ঘদিন যাবত মরা মুরগী এনে
উপজেলার বিভিন্ন খাবার হোটেলে বিক্রি করে আসছিল।

অপরদিকে দুপুরে শ্রীনগর স্টেডিয়াম সংলগ্ন গুলশান আনন্দ ফার্নিচারের মালিক মোঃ আলমগীরকে ছাড়পত্র বিহীন অবৈধ ভাবে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করার অপরাধে অগ্নি প্রতিরোধ নির্বাপক আইন ২০০৩ অনুযায়ী তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিগার সুলতানা। এছাড়া আগামী ১০ দিনের মধ্যে গ্যাস বিক্রেতা আলমগীরকে সকল বৈধ কাগজপত্র দেখানোর জন্য নির্দেশ দেন বিচারক। এসময় উপস্থিত ছিলেন শ্রীনগর ফায়ার স্টেশন অফিসার মোঃ আরিফুজ্জামান শেখ, ভূমি অফিস সহকারী সাইদুর রহমান প্রমুখ।

স্টেশন অফিসার সাংবাদিকদের বলেন, ছাড়পত্র বিহীন-অবৈধ ভাবে যেখানে সেখানে এলপিজি গ্যাস বিক্রি করা হচ্ছে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে। এতে করে অনেক সময় অগ্নি দুর্ঘটনার মতো ঘটনা ঘটছে। আইন মেনে ব্যবসা করা উচিত। কিন্তু এখানে গ্যাস ব্যবসায়ীরা কোন প্রকার আইন মানছেন না।

Related Posts