নাসিরনগরের বিভিন্ন উন্নয়নের খন্ড চিত্র

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া: জেলার সর্ব উত্তরে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হাওড় ও নদনদী বেষ্টিত পল্লীর প্রত্যন্ত অঞ্চলে অবস্থিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ সংসদীয় ২৪৩ আসন। ৭৩ পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগ সরকারের আমল থেকে এক পর্যন্ত এই অবহেলিত অঞ্চলের প্রভূত উন্নয়ন সাধিত হয়েছে।

৭১ পরবর্তী সময় থেকে এখন পর্যন্ত আওয়ামী লীগ ছাড়া আর কোন সরকার নাসিরনগরে এত উন্নয়ন করতে পারেনি। স্বাধীনতার পর এ আসন থেকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী এডঃ ছায়েদুল হক ১৯৭৩, ১৯৯৬, ২০০১, ২০০৮ ও ২০১৪ সালে বিজয়ী হন। পরবর্তীতে ২০১৮ সালের উপনির্বাচনে ও ২০১৯ সালের ৩০ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম বিজয়ী হন। ১৯৭৯ সালে উকিল আব্দুল ভূঁইয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী ১ বার।

আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে নাসিরনগরে উল্লেখ্যযোগ্য উন্নয়নের মাঝে রয়েছে ৫১ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণ, পশু চিকিৎসা কেন্দ্র নির্মাণ, সমগ্র উপজেলা বিদ্যুতায়ন, খাদ্য গুদাম, ফায়ার সার্ভিস, থানা ভবন, লাইফ স্ট্রক, কৃত্রিম প্রজনন হ্যাচারি নির্মাণ। মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বহুতল বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন স্থাপন, মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি সৌধ স্থাপন, মৎস্য ভবন নির্মাণ, উপজেলা নির্বাচন অফিস নির্মাণ, উপজেলা সাব-রেজিষ্ট্রারী অফিস নির্মাণাধীণ সহ বিভিন্ন অফিস বিল্ডিং নির্মাণের উদ্যোগ নেয়।
সরাইল-নাসিরনগর,মহাসড়ক,নাসিরনগর-চাতলপাড়,নাসিরনগর-মাধবপুর,নাসিরনগর-ছাতিয়াইন, নাসিরনগর-চাপরতলা, নাসিরনগর, ধরমন্ডল সহ আরও বড় বড় রাস্তা নির্মাণ, শ্রীঘর ও র্প্বূভাগে দুইটি এস,ই,এস,ডিপি মডেল হাইস্কুল নির্মাণ ছাড়াও শত শত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, মসজিদ,মন্দির, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান স্থাপন, ফান্দাউক- মোড়াকুড়ি সীমানায় বলভদ্র নদীর উপর ব্রিজ নির্মাণ ছাড়াও অসংখ্য ব্রিজ, খালভার্ট সহ বিভিন্ন গ্রামীন অবকাঠামোর উন্নয়ন, নদী খনন সব কিছু আওয়ামীলীগ সরকারের উল্লেখযোগ্য অবদান।

লবণের প্রাসাদ

Related Posts