নাটোরে ট্রলির চাপায় নিহত ১

সুফি সান্টু, নাটোর: ইট ভাটার ট্রলির নীচে চাপা পরে এমদাদুল হক (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে নাটোর উপজেলার হালসা মাটিকোপা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা ট্রাক্টর চালিত  তিনটি ট্রলি  আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। নিহত এমদাদুল  মাটিকোপা গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে। ঘটনার পরেই নাটোর সদর উপজেলা (সহকারী কমিশনার ভূমি) আবু হাসান, সিংড়া উপজেলা (সহকারী কমিশনার ভূমি) বিপুল কুমার ঘটনা স্থল পরির্দশন করেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মাটি কোপা গ্রাম নন্দকুজা নদী থেকে অবৈধভাবে মাটি কেটে নিয়ে যেতে থাকে ইট ভাটার মালিকরা। এ  বিষয়ে প্রতিবাদ করলেও ইটভাটার মালিকরা শুনেননি। এ অবস্থায় শুক্রবার সকালে ট্রলিতে করে মাটি কেটে নিয়ে আসার পথে একই গ্রামের  এমতাজুল ট্রলির নিচে চাপা পড়ে ঘটনা স্থলেই সে মারা যায়। এখবর ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত জনতা তিনটি ট্রলি ও ট্রাক্টরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

নাটোর সদর উপজেলা (সহকারী কমিশনার ভূমি) আবু হাসান জানান, ঘটনা জানার পর তিনি মাটি কোপা গ্রামে যায়। এ সময় ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক নামে একমাটির কন্ট্রাকটার নন্দকুজা নদী থেকে ভ্যেকু মেশিন দিয়ে মাটি কাটার সত্যতা পাওয়া যায়। পরে তিনি অবৈধভাবে নদী থেকে মাটি কাটা এবং পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট করায়একটি ভ্যেকু মেশিন  ও ক্ষতিগ্রস্থ তিনটি  ট্রলি জব্দ করে স্থানীয় ইউপি সদস্য আঃ আজিজ মন্ডলের হেফাজতে রাখা হয়। নাটোর ফায়ার সার্ভিসের টিম লীডার মোখলেছুর রহমান জানান, আগুনের সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষনিক সেখানে একটি পানিবাহী ও একটি টহল গাড়ী নিয়ে প্রায় এক ঘন্টা  চেষ্টাচালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হলেও এতে তিনটি ট্রলি সম্পুর্ন পরে যায়।

নাটোর থানার ওসি জালাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সংবাদ পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয় এবং নিহতেল লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে।

Related Posts