মাগুরায় ধর্ষণের দায়ে এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন

মোঃ কাসেমুর রহমান, মাগুরা: মাগুরার মোহাম্মদপুর উপজেলার হরিণাডাঙ্গা গ্রামের একটি ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ দিয়েছে মাগুরার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। দন্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি হরিণাডাঙ্গা গ্রামের সিরাজ মোল্যার ছেলে মাসুদ মোল্যা (৪০)।

রাষ্ট্রেপক্ষের আইনজীবী এ্যাডভোকেট আবু বক্কার জানান, গত ১৩ অক্টোবর ২০১০ রাতে হরিণাডাঙ্গার মৃত আবু বক্কর মোল্যার মেয়ে রিনা খাতুনের ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে আসামী মাসুদ। অস্ত্রের মুখে রিনাকে ধর্ষণ করে। প্রথমে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা চললে ও রিনা অন্তঃস্বত্তা হয়ে পড়লে মাসুদ তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেয়। কিন্তু পরে এ বিষয়ে গড়িমসি করায় ৪ মে ২০১১ তারিখে রিনা মাগুরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষণ মামলা করে। ইতিমধ্যে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয় রিনার। যার পিতৃত্ব অস্বীকার করে মাসুদ। এ বিষয়ে ডিএনএ পরীক্ষার আদেশ দেন আদালত। ডিএনএ পরীক্ষায় মাসুদ মোল্যার বিরুদ্ধে ওই সন্তানের পিতৃত্বসহ মামলায় বর্ণিত অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

মাগুরার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক প্রণয় কুমার দাস
বুধবার (৩০.০১.১৯) আসামী মাসুদ মোল্যাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের অতিরিক্ত কারাদন্ডাদেশ দেন। মামলায় মোট ৮ জনের সাক্ষ্য গ্রহন করে আদালত। ছেলে সন্তানের বিষয়ে ২১ বছর পর্যন্ত সরকারিভাবে ব্যয়ভার বহন এবং দন্ডপ্রাপ্ত আসামী মাসুদ মোল্যার পিতৃ পরিচয়ে সে বড় হবে মর্মে আদেশ দিয়েছেন আদালত।

Related Posts