বিক্ষোভে ভ্রূক্ষেপ নেই নরেন্দ্র মোদীর

ভারতে নতুন নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভে কমপক্ষে ২৫ জন নিহত হওয়ার পরও ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতা এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কোন ভ্রূক্ষেপ নেই। ভারতজুড়ে বিক্ষোভের জেরে হিংসা ছড়িয়েছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। সেই আবহেই আজ দিল্লির রামলীলা ময়দানে সভায় ভাষণ রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

জনসভায় ভারতজুড়ে ও দিল্লিতে চলমান অশান্তি ও হিংসা থামানোর আহ্বানের পাশাপাশি বিরোধীদের কড়া সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। তোপ দাগেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও।

লকহার্টে হট এয়ার বেলুন দুর্ঘটনা

দিল্লিতে (রোববার) এক জনসভায় ভাষণে তিনি বরঞ্চ বলেছেন, যে সংসদ এবং যে এমপিরা এই আইন পাশ করেছে তাদের সিদ্ধান্তকে সম্মান করতে।

বিরোধীদের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বলেন, ‘আপনারা মোদীকে গালি দিন। মোদীকে ঘৃণা করুন। যত খুশি জুতো মারুন। কিন্তু দেশের সম্পত্তি, গরিবের অটো, দুঃস্থর ঘর জ্বালাবেন না।’ যদিও এদিনের সভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বা এনআরসি নিয়ে কোনও বিশ্লেষণের পথে হাঁটেননি প্রধানমন্ত্রী। তিনি জানান, ‘মিথ্যা প্রচার চলছে, কারও অধিকার কেড়ে নেওয়া হবে না। গুজব ছড়ানো হচ্ছে। আমার কাজের বিশ্লেষণ করুন। কোথাও কোনও বৈষম্য হলে আমি জবাব দেব।’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও আলাদা করে আক্রমণ করেন মোদী।

ফিলিস্তিনি নেতা আবু জিহাদ হত্যায় মোসাদ জড়িত

সভায় প্রধানমন্ত্রী মমতাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমাদের দিদি। তিনি তো কলকাতা থেকে সরাসরি রাষ্ট্রসংঘে পৌঁছে গেলেন। আপনি কাদের বিরোধিতা করছেন, কাদের সমর্থন করছেন, সেটা গোটা দেশ দেখছে মমতা দিদি? এই দিদি কয়েক বছর আগেও সংসদে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশ থেকে আসা অনুপ্রবেশকারীদের দেশ থেকে তাড়াতে চেয়েছিলেন। আজ আপনি এত কেন বদলে গেলেন। বাঙালি নাগরিকদের কেন আপনি শত্রু বানিয়ে ফেললেন? হঠাৎ বদলে গেলেন কেন? মমতা দিদি, বাংলার নাগরিকদের উপর থেকে আপনার ভরসা উঠে গিয়েছে? আপনাকে পুরো ভারতবর্ষ দেখছে দিদি!’

বিমান থেকে প্যারাসুটে পালিয়েছিলেন যে চোর

বিশ্বের সংবাদদেশের সংবাদ, আর রাজনীতি, অর্থনীতি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিফিচারবিনোদন আর খেলাধুলার সর্বশেষ বাংলা সংবাদ পড়তে লাইক করুন প্রবাসী টিভি’র Facebook পেজ আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel.

Related Posts