ভারতে অবস্থানের আরও এক বছর অনুমতি পেল তসলিমা নাসরিন

বিতর্কিত বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিনের (Taslima Nasreen) ভারতে থাকার মেয়াদ আরও একবছর বাড়িয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার। রোববার ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ২০২০ সালের জুলাই পর্যন্ত তসলিমা নাসরিনকে বসবাসের অনুমতির কথা জানায়।
তসলিমা নাসরিন
তসলিমা নাসরিন

২০০৪ সাল থেকে একটানা ভারতে থাকার অনুমতি পেয়েছেন ৫৬ বছর বয়সী লেখিকা তসলিমা নাসরিন। যদিও বিতর্কিত এই লেখিকার সুইডেনের নাগরিত্ব রয়েছে। ভারতের বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের বরাতে জানা গেছে, ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তসলিমা নাসরিনের বসবাসের মেয়াদ এক বছর বাড়িয়ে হয়েছে। ফলে দেশটিতে ২০২০ সালের জুলাই পর্যন্ত থাকতে পারবেন তসলিমা নাসরিন। গেল সপ্তাহে বসবাসের মেয়াদ তিন মাস বাড়ার সুযোগ পান তসলিমা নাসরিন। সেসময় তসলিমা নাসরিন এক টুইটের মাধ্যমে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহকে মেয়াদ এক বছর বাড়ানোর অনুরোধ করেন।

আয়রনম্যান আরাফাতের গল্প

১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। ইসলাম বিরোধী মন্তব্যের জেরে প্রাণনাশের হুমকি মুখে দেশ ছাড়তে বাধ্য হন তসলিমা নাসরিন। এরপর থেকে তসলিমা নাসরিন দেশছাড়া। ইউরোপ ও আমেরিকা ইউরোপেও থেকেছেন। কিন্তু তসলিমা নাসরিন  ভারতে বসবাসের আগ্রহ দেখান। কলকাতাকে তার প্রথম পছন্দ। ইতিমধ্যে ভারতের নাগরিকত্বের আবেদন করেছেন তসলিমা নাসরিন । তবে তসলিমা নাসরিনের আবেদনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়নি ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

আপনার সাফল্যের গল্প জানাবে প্রবাসী টিভি

বিশ্বের সংবাদদেশের সংবাদ, আর রাজনীতি, অর্থনীতি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিফিচারবিনোদন আর খেলাধুলার সর্বশেষ বাংলা সংবাদ পড়তে লাইক করুন প্রবাসী টিভি’র Facebook পেজ আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel.

Related Posts